Tuesday, 27 February 2018

গরিব মমতার ভাইয়েরা সবাই কোটিপতি


মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি




আমি একটা কথা  ভাবছি গরিব দের জন্য, সমাজের জন্য কাজ করতে করতে কিকরে তাদের সম্পত্তি দুই গুন তিনগুন বৃদ্ধিপায় | কিন্তু আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর ক্ষেত্রে এই কথাটি কাজে লাগে না|
কারন

ভারতের গরিব মুখ্যমন্ত্রীদের সারিতে দুই নম্বরে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। 
কিন্তু তার সম্পাতি বেড়েছে অন্য দিকে৷
 পশ্চিমবঙ্গের ধনী সংসদ সদস্যদের তালিকায় প্রথম সারিতে রয়েছেন রাজ্যের দিদি নামে খ্যাত মমতার দলের ‘দাদারা’।
সংসদের দুই কক্ষ মিলিয়ে পশ্চিমবঙ্গের 57 সংসদ সদস্যের মধ্যে কোটিপতি 35 জন। এর মধ্যে 29 জনই তৃণমূলের সংসদ সদস্য। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া, ও আনন্দবাজারের।
বেসরকারি নজরদার সংস্থা অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মস (ADR ) সম্প্র্রতি দেশের সকল মুখ্যমন্ত্রী ও সংসদ সদস্যের সম্পত্তি ও তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা নিয়ে একটি সমীক্ষা চালায়।
দেখা গেল মানিক সরকারের পরেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের দ্বিতীয় গরিব মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু মমতা গরিব হলেও, লোকসভায় তার দলের অর্ধেকের বেশি সংসদ সদস্যই কোটিপতি। তালিকার সবচেয়ে উপরে অভিনেতা দেব, যার সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় 15 কোটি টাকা। আর সবচেয়ে কম সম্পত্তি ঝাড়গ্রামের উমা সোরনের, 4.99লাখ টাকা।
রাজ্যসভাতেও ছবিটি  কম-বেশি এক। তালিকায় প্রথমে রয়েছেন তৃণমূল সংসদ সদস্য কে ডি সিংহ। তার ঘোষিত সম্পত্তির পরিমাণ 83 কোটি টাকা। সবচেয়ে নিচে 3.19 লাখ টাকার সম্পত্তির মালিক হলেন তৃণমূলের নাদিমুল হক।
গুরুতর ফৌজদারি অভিযোগের প্রশ্নে অবশ্য প্রথমেই রয়েছেন কংগ্রেসের অধীর চৌধুরী। 16 টি মামলা রয়েছে তার নামে। এর পরে তৃণমূলের ইদ্রিশ আলি, 9 টি ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত। এ ছাড়া 4 টি মামলা রয়েছে তাপস পালের নামে।

প্রথমের লাইন গুলি বলার কারন আশ করি সব  পরিষ্কার বুঝতে পারছেন 
আমার কোনো রাজনৈতিক দলের সাথে ব্যক্তি গত কোনো সমস্যা নেই 
কিন্তু যেটা সত্য সেটা সত্যই থাকে

ভালো লাগলে  কমেন্টে জানান 

0 Comments:

Post a Comment

Subscribe to Post Comments [Atom]

<< Home